স্বামীর মূর্তি দিয়ে মন্দির বানালেন স্ত্রী

পৃথিবীতে সবচেয়ে ভালোবাসার সম্পর্ক হলো স্বামী-স্ত্রীর। স্বামী ও স্ত্রীর বন্ধন সাত জনমের। অর্থাৎ এই জীবনে যে আপনার স্ত্রী বা সহধর্মিণী হবেন বা হয়েছেন তার সাথে এ জনমের পরেও আবার দেখা হবে বা পূর্ব জনমেও দেখা হয়েছে। একজন স্বামীর যেমন তার স্ত্রীর উপর অনেক দায়িত্ব থাকে। তেমনি স্ত্রী এর ও অনেক দায়িত্ব থাকে তার স্বামীর প্রতি।কিন্তু এই সম্পর্কটি শুধুমাত্র দায় বা দায়িত্বের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়।

এটি ভালবাসার সম্পর্ক মায়ার সম্পর্ক। এমনই এক ভালোবাসার দৃষ্টান্ত তৈরি হলো পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে। কয়েক বছর আগে এক গাড়ি দুর্ঘটনায় স্বামীকে হারান এক ভারতীয় নারী। স্বামীর প্রতি শ্রদ্ধা দেখাতে ছোট একটি মন্দির স্থাপন করেছেন তিনি। শুধু তাই নয় সেখানে মার্বেল পাথরে স্বামীর মূর্তি বসিয়ে পূজা দেন তিনি।

ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের প্রকাসাম জেলায় বাস করেন পদ্মাবতী। স্বামীর নামে মন্দির স্থাপন করে ব্যাপক মনোযোগ কেড়েছেন তিনি। পদ্মাবতীর দাবি তার স্বামী গুরুকুরা আনকি রেড্ডি ২০০৭ সালে মা’রা যাওয়ার পর তার স্বপ্নে দেখা দেন। তখন তার নামে একটি মন্দির স্থাপন করতে বলেন স্ত্রীকে। পদ্মাবতী তার ইচ্ছার প্রতি সম্মান দেখান আর এই মন্দিরে তখন থেকে পূজা দেন।

স্বামী মূর্তির সামনে পদ্মাবতীর পূজা দেওয়ার একটি ভিডিও সম্প্রতি ভারতের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। সেখানে স্বামীর প্রতি তার প্রেম এবং ত্যাগের প্রশংসা করেছেন অনেকেই। সপ্তাহান্তে এবং পূর্ণিমা রাতে পদ্মাবতী বিশেষ পূজা দেন আর স্বামীর নামে স্থানীয়দের মধ্যে খাবার বিতরণ করেন। ওই মন্দিরের পরিচিতি আশেপাশে ছড়িয়ে পড়ায় অনেকেই সেখানে মাঝে মাঝে প্রার্থনার জন্য আসেন।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.