১৮ বছর পর পাকিস্তানে নিউজিল্যান্ড

তিন ম্যাচের ওয়ানডে এবং পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ম্যাচ খেলতে পাকিস্তানে পৌঁছেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। গত ১৮ বছরের মধ্যে এটিই তাদের প্রথম পাকিস্তান সফর। টম লাথামের নেতৃত্বে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের একটি অংশ গতকাল শনিবার ইসলামাবাদে পৌঁছে। বিমানবন্দর থেকে নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটারদের বুলেটপ্রুফ বাসে করে হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়।

সফরকারী দলের আরো পাঁচ সদস্য আজ পাকিস্তানে পৌঁছবেন বলে জানা গেছে। এই সফরে কিউদের বেশ কয়েকজন নিয়মিত সদস্য থাকছেন না। ২০০২ সালে নিউজিল্যান্ডের সাথে সিরিজ চলাকালে করাচিতে হোটেলের বাইরে বোমা বিস্ফোরণ ঘটে। এর জেরে সফর সংক্ষিপ্ত করে ফিরে যায় কিউইরা। এরপর ২০০৩ সালে পাঁচটি ওয়ানডে খেলতে তারা ফের পাকিস্তান সফরে যায়। এটাই ছিলো তাদের সবশেষ পাকিস্তান সফর।

২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কার টিম বাসের উপর হামলার ঘটনা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে পাকিস্তানকে নির্বাসনে পাঠিয়ে দেয়। দীর্ঘদিন তারা তাদের হোম সিরিজ সংযুক্ত আরব আমিরাতে খেলেছে। সম্প্রতি কয়েকটি দেশ পাকিস্তান সফর করেছে। পরিস্থিতি এখন অনেকটাই স্বাভাবিক।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) জানায়, কিউইরা তিনদিনের কোয়ারেন্টিন শেষে ১৫ সেপ্টেম্বর অনুশীলনে নামবে। ১৭ সেপ্টেম্বর রাওয়ালপিন্ডি স্টেডিয়ামে শুরু হবে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটি। বাকি দুটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে যথাক্রমে ১৯ ও ২১ সেপ্টেম্বর।

টি-টোয়েন্টি সিরিজ মাঠে গড়াবে ২৫ সেপ্টেম্বর। সিরিজের পাঁচটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে লাহারের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে। বাকি ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে যথা্ক্রমে সেপ্টেম্বরের ২৬, ২৯ এবং অক্টোবরের ১ ও ৩ তারিখে। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটি আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপ সুপার লিগের অন্তর্গত হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু ডিআরএস সুবিধা না থাকায় তা সম্ভব হচ্ছে না।

নিউজিল্যান্ড সফরের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে ইংল্যান্ডের পুরুষ ও নারী ক্রিকেট দলের পাকিস্তান সফরে আসার কথা রয়েছে। আসছে ডিসেম্বরে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলেরও পাকিস্তান সফরে আসার কথা।এছাড়া ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি-মার্চ নাগাদ অস্ট্রেলিয়া দলেরও পাকিস্তান সফরের কথা রয়েছে। সফরটি বাস্তবে রূপ পেলে সেটি হবে ১৯৯৮ সালের পরে অজিদের প্রথম পাকিস্তান সফর।

Sharing is caring!